জোরে নিশ্বাস নেবেন এবং ইতিহাস বই থেকে নোট করবেন

0
29

জোরে নিঃশ্বাস নেবেন এবং ইতিহাস বই থেকে নোট করবেন। সকাল বেলা পান্তা গরুর মাংস দিয়ে খেতে কি মজা লাগে? সবকিছুই আমাকে জানতে হবে, তাতে কি তোমার কোন সমস্যা হবে? যদি সমস্যা হয় তাহলে আমাকে জানাবা। আমি চেষ্টা করব সব সমাধান করার।

আমিতো তোমাকে সব কিছু সমান্তর ভাবে বলে যাচ্ছি। কিন্তু তার কাছ থেকে কোন উত্তর পাচ্ছিনা। এটা আমার মনের শান্ত আবেগ কে প্রশমিত করতেছে। একটা ইতিহাস বই দরকার ছিল। ভাবতেছি তার কাছ থেকে চেয়ে নেব। কিন্তু তার কাছে আছে এমনটা মনে হচ্ছে না।

আমি তোমার উপর অনধিকার চর্চা করি না। তোমার প্রতিটা বিষয়ে খুটিনাটি আমি জানার চেষ্টা করি। তাই আমি তোমাকে ভালো রাখার সব ব্যবস্থা করতে পারি। তোমার সামনে যত সমস্যা আসুক আমি তা মোকাবেলা করতে পারি। এখন কি তুমি বিষয়টা বুঝতে পেরেছ।

তুমি যার সঙ্গে ফোনে কথা বল না কেন। আমি তার প্রতিটি কথা তোমার কাছ থেকে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে শুনতে চাই। এর কারণ কি? কারণ আমি যেন ভবিষ্যতের সমস্যা এবং সমাধান অনুমান করতে পারি এবং সে অনুযায়ী কাজ করতে পারি। যার ফলে আমাদের ভবিষ্যতের সমস্যা কেটে যায়।

ভালো রাখতে পারছি কিনা সেটা তো মূল বিষয় নয়। আমি কি তোমাকে ভালো রাখার চেষ্টা করেছি? মানে আমি কি আমার জায়গা থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি কিনা সেটা হলো মূল বিষয়। তোমার কি মনে হয় আমি আমার জায়গা থেকে চেষ্টা করি?

তোমাকে ভালো রাখার জন্য শুধু আমি কেন, আমার পরিবার ও তো চেষ্টা করতেছে। কিন্তু নানাবিধ জটিলতার কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না। একটা পরিস্থিতি কি একদিনেই সমাধান করা সম্ভব হয়? সময় যাবে, আমি আশা করছি সবকিছু সমাধান হয়ে যাবে।

আমি আগে যতটা চেষ্টা করতাম এখন তার থেকে অনেক বেশি চেষ্টা করব। আমার আব্বু আমাকে কালকে একটি, দাওয়াত খেতে বলেছে। কিন্তু আমি যেতে চাইনি। আমি পরিষ্কার বলে দিয়েছি, আমি আর কোথাও যাবো না। আগে আমার চাকরি হোক তারপর।

আমি মন থেকে চেষ্টা করব। অনেক চেষ্টা করব। কিন্তু আমি একটা জিনিস বুঝতে পারতেছি না। তুমি এত অল্প কষ্ট সহ্য করতে পারতেছ না? তাহলে ভবিষ্যতে আরো বেশি সমস্যা সৃষ্টি হলে তখন তুমি কি করবে? তুমি কি পারবে সে সব সমস্যা সমাধান করতে?

তোমার বাবা ও তোমাকে অনেক ভালোবাসে। কিন্তু তুমি তার মাঝে যে রাগ ও ক্ষোভ দেখতে পাচ্ছ, সেটা নিতান্তই খুব সামান্য সময়ের জন্য। যখন আমি ভালো কিছু করব এবং আমাদের মাঝে একটি সম্পর্ক তৈরি হবে। তখন সবকিছুই খুব প্রফুল্ল হয়ে উঠবে।

যদি তুমি সেই প্রতিকূল পরিবেশ জয় করে আমার কাছে আসতে পারো । তবে আমি তোমাকে অবশ্যই সব থেকে বেশি মূল্যায়ন করব। কারন আমি আমার ঘরে কোন ফার্নিচার নিয়ে আসতে চাই না। তুমি কি এই কথাটার অভ্যন্তরীণ অর্থ বুঝতে পেরেছ?

এখন এসব বিষয় বাদ দিয়ে অন্য কিছু বিষয় নিয়ে কথা বলি। সকালে পান্তা খাওয়ার পরিকল্পনা কে করেছে? তুমি নাকি তোমার আম্মু? যখন এত সুন্দর খাবার খাও তখন কি আমার কথা মনে পড়েনি? আমার তো মনে হয় না যে আমার কথা তোমার মনে পড়েছে।

আমি কিন্তু একবারও বলিনি আমি বিষয়টাকে অন্য পাশে নিয়ে যাচ্ছি। আমি শুধু বলেছি এক বিষয়ে কথা না বলে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলি। তুমি সব সময় আমাকে কটু দৃষ্টিতে দেখো। আমি কি সব সময় কুটিল বুদ্ধি প্রয়োগ করি?

আমি এমন তাই তুমি এত ভালো আছো। আমি যদি বোকা হতাম, তাহলে তুমি অনেক সমস্যায় পড়তে। আমি এরকম বলে দেখো না সবাই আমাকে তাদের সম্পত্তির দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়। শুধু তোমার বাবাই তা এখনো বুঝতে পারল না।